Friday , May 24 2019
ব্রেকিং নিউজ :

Home / শীর্ষ সংবাদ / ক্রসফায়ারের নামে কোনো বাহিনী কাউকে হত্যা করছে না: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

ক্রসফায়ারের নামে কোনো বাহিনী কাউকে হত্যা করছে না: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

খােলাবাজার ২৪,শনিবার,৯ মার্চ ২০১৯ঃ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেছেন, ‘কোনো নিরপরাধ ব্যক্তিকে পুলিশ গুলি করে না। বিনা অপরাধে কাউকে গুলি করা হয় না, বরং আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি করে। আর কোনো অভিযানে গেলে মাদক বিক্রেতারা অবৈধ অস্ত্রের ব্যবহার করলেই ক্রসফায়ারের ঘটনা ঘটে।’

শনিবার (৯ মার্চ) রাজধানীর তেজগাঁওয়ে বিজি প্রেস মাঠে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতর আয়োজিত মাদকবিরোধী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘পুলিশকে আত্মরক্ষার্থে গুলি চালাতে হয়। সুশীল সমাজের অনেকেই সমালোচনা করছেন, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী নাকি নিরাপরাধদের ক্রসফায়ারের নামে হত্যা করছে। আমি স্পষ্ট করে বলছি, ক্রসফায়ারের নামে কোনো বাহিনী কাউকে হত্যা করছে না।’

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘মাদক কারবারিদের ধরতে গেলেই তারা অবৈধ অস্ত্রের ব্যবহার করছে। সাধারণ মানুষের যেমন আত্মরক্ষার অধিকার আছে, আমাদের বাহিনীরও আছে। যারাই সারেন্ডার করবেন, মাদকের ব্যবসা ছাড়বে, তাদের শেষ সুযোগ দেয়া হবে। নইলে জেলে যেতে হবে। আর অস্ত্রের ঝনঝনানি যদি দেখাতে চান তাহলে কী পরিণতি হতে পারে তা আপনারাই জানেন।’

তিনি বলেন, ‘বিদেশে দেখেন যেখানেই মাদকের ব্যবসা, সেখানে কী পরিমাণ অস্ত্রের ব্যবসাও হচ্ছে। আমরা বলেছি, আইনি সহযোগীতা করবো, সারেন্ডার করেন, মুচলেকা দেন।’

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেন, ‘আমি বিজিবিকে নির্দেশনা দিয়েছি কোনোভাবে সীমান্ত দিয়ে যেন মাদক না ঢোকে। কোস্টগার্ডকে বলেছি উপকূলে নজরদারি রাখতে। এরপরেও মাদক আসছে। আমরা মাদক তৈরি করি না, তবুও মাদক আসছে। মাদক আমাদের যে কী ক্ষতি করছি তা ঘরে ঘরে জানাতে হবে। সচেতনতা বাড়াতে হবে।’

তিনি বলেন, ‘আমাদের কারাগারে ৩৫ হাজার ধারণ ক্ষমতা। অথচ আছে ৯৫ হাজার কয়েদি। এই কয়েদিদের অধিকাংশই মাদক সংশ্লিষ্ট মামলায় গ্রেফতার। কঠোরতার কারণেই আজ মাদকসেবী, মাদক ব্যবসায়ী ও মাদক কারবারিদের জায়গা কারাগারে।’

ছাত্রদের উদ্দেশে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘তোমরা ছাত্র যুবকরা মাদককে না বলবে, মাদক বিক্রেতা ও ব্যবসায়ীদের ধরিয়ে দেবে। আমরা তালিকা করেছি, কাউকে ছাড়বো না। ব্যবসা না ছাড়া পর্যন্ত আমাদের অভিযান চলবে।’

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘যখন পুরো বিশ্ব হিমশিম খাচ্ছিল তখন আমরা বাংলাদেশে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনায় ভয়ংকর জঙ্গিবাদকে নিয়ন্ত্রণ করেছি। যারা(জঙ্গিরা) বাংলাদেশকে অকার্যকর রাষ্ট্র হিসেবে দেখানোর পায়তারা করছিল। আবার জঙ্গিবাদের মতোই মাদকের ব্যাপারে জিরো টলারেন্স ঘোষণা করেছেন প্রধানমন্ত্রী। মাদকের বিরুদ্ধে আমাদের যুদ্ধ শুরু হয়েছে।’

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ইসলামিক ফাউন্ডেশনের প্রতিনিধি মোসাদ্দেক মো. আবুল কালাম, সিটি কাউন্সিলর মুন্সি কামরুজ্জামান কাজল, মনো -চিকিৎসক মোহিত কামাল, মানসের সভাপতি অধ্যাপক অরূপ রতন চৌধুরী।

Print Friendly, PDF & Email

About kholabazar 24