Sunday , April 7 2019
ব্রেকিং নিউজ :

Home / তথ্য প্রযুক্তি / সেন্টমার্টিন সীমান্তে ভারী অস্ত্রসহ বিজিবি মোতায়েন

সেন্টমার্টিন সীমান্তে ভারী অস্ত্রসহ বিজিবি মোতায়েন

হঠাৎ সেন্টমার্টিন সীমান্তে ভারী অস্ত্রসহ বিজিবি মোতায়েন

খােলাবাজার ২৪, রবিবার, ০৭এপ্রিল ২০১৯ঃ সরকারি নির্দেশ মোতাবেক ভারী অস্ত্রসহ সেন্টমার্টিনে আবারও বিজিবি মোতায়েন করা হয়েছে। সীমান্ত পাহারার অংশ হিসেবে সরকারি সিদ্ধান্তে এটি করা হয়েছে বলে জানিয়েছে বিজিবি সদর দফতর।

রবিবার (৭ এপ্রিল) থেকে দেশের সর্বদক্ষিণ সীমান্ত সেন্টমার্টিনে ভারী অস্ত্রসহ পুনরায় বিজিবি মোতায়েন করার কথা ব্রেকিংনিউজকে জানান বিজিবি জনসংযোগ কর্মকর্তা মুহম্মদ মোহসিন রেজা।

মোহসিন রেজা জানান, ১৯৯৭ সালের আগ পর্যন্ত সেন্টমার্টিন দ্বীপে বিজিবি (তৎকালীন বিডিআর) ছিল। এরপর থেকে সেখানে বিজিবির কার্যক্রম বন্ধ ছিল। এতদিন ধরে কোস্টগার্ড সদস্যরা ওই সীমানা পাহারা দিয়ে আসছিল। কিন্তু এবার সেন্টমার্টিনে বিজিবির একটি বিওপি স্থাপনের কার্যক্রম চলছে। তাই সেখানে টহল দিচ্ছে বাহিনীটি। এটা নিয়মিত টহলের অংশ বলেও জানান তিনি।

সেন্টমার্টিনে বিজিবি মোতায়েন করার মতো কোনো বিশেষ পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে কিনা, জানতে চাইলে মোহসীন রেজা বলেন, ‘না, কোনো বিশেষ পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়নি। সারাদেশের সীমান্ত যেভাবে পাহারা হয়ে থাকে, সেভাবেই সেন্টমার্টিনে বিজিবির সদস্যরা পাহারায় থাকবে। আর বিজিবি তো সব সময়ই অস্ত্র নিয়েই পাহারায় থাকে। এখানে ভারী অস্ত্র বলতে তেমন কিছু বোঝানো হয়নি।’

তিনি বলেন, ‘সেন্টমার্টিন থেকে বিভিন্ন সময় রোহিঙ্গা আটক করেছে কোস্টগার্ড, পুলিশ, র‌্যাব ও বিজিবি। বিভিন্ন সময় ওই এলাকায় দস্যুতার ঘটনাও ঘটেছে। টেকনাফ থানার একটি ফাঁড়ি রয়েছে সেন্টমার্টিনে। তবে বর্তমান সরকার মনে করছে, সেন্টমার্টিনের নিরাপত্তায় বিজিবি মোতায়েন দরকার। তাই বিজিবি মোতায়েন করা হয়েছে।’

এদিকে টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. রবিউল হাসান বলেন, ‘সীমান্ত সুরক্ষার জন্য কোস্টগার্ডের পাশাপাশি বিজিবিও কাজ করবে। তাই বিজিবি সেন্টমার্টিনে টহল শুরু করেছে। বিওপি স্থাপনের প্রক্রিয়া প্রায় শেষ। এতে করে সীমান্তে চোরাচালান, অবৈধ অনুপ্রবেশ, সীমান্তের নানা অপরাধ দমনে অনেকটা সহায়ক হবে।’

Print Friendly, PDF & Email

About kholabazar 7x24