Sun. Apr 18th, 2021

33রবিবার, ৩০ আগস্ট ২০১৫
বাংলাদেশ প্রিমিয়ার ক্রিকেট লিগের (বিপিএল) তৃতীয় আসরের ফ্র্যাঞ্চাইজি মালিকানা নিতে নতুন ১১ ও পুরনো দুই প্রতিষ্ঠান মিলে সর্বমোট ১৩টি প্রতিষ্ঠান আগ্রহ দেখালেও মাত্র পাঁচটি প্রতিষ্ঠান পে অর্ডার ও ব্যাংক গ্যারান্টি জমা দিয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে পুরোনো দুটি ও নতুন তিনটি প্রতিষ্ঠান।

বিপিএল-৩ এ নিশ্চিত হওয়া প্রতিষ্ঠানগুলো হলো- ডিবিএল গ্রুপ, ঢাকা ডিনামাইটস (বেক্সিমকো), এক্সিয়ম টেকনোলজিস, আই স্পোর্টস লিমিটেড (রংপুর), রয়্যাল স্পোর্টিং লিমিটেড (সিলেট)। পাঁচটি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে সিলেট এবার কুমিল্লা নামে বিপিএলে অংশ নেওয়ার আগ্রহ দেখিয়েছে।

আজ রোববার ছিল বিসিবির কাছে এক কোটি টাকার পে অর্ডার ও সাড়ে চার কোটি টাকার ব্যাংক গ্যারান্টি জমা দেওয়ার শেষ দিন। বিসিবির টার্গেট সাত ফ্র্যাঞ্চাইজি হওয়ায় এ সময়সীমা বাড়ানো হতে পারে।

রোববার বিকেলে মিরপুরে এমনটাই জানিয়েছেন বিসিবির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) নিজাম উদ্দিন চৌধুরী সুজন। তিনি বলেন, ‘এক্সপ্রেসশন অব ইন্টারেস্টের বিজ্ঞাপনের প্রেক্ষিতে বেশ কয়েকটা কোম্পানি বিপিএলের ফ্র্যাঞ্চাইজি হওয়ার জন্য আগ্রহ দেখিয়েছিল। আজকের দিন পর্যন্ত আমরা পাঁচটা কোম্পানির নিয়শ্চতা পেয়েছি। আরও বেশ কয়েকটা কোম্পানি আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছে। বোর্ডের চিন্তা-ভাবনা টুর্নামেন্টটাকে সফল করা। সেক্ষেত্রে আমরা একটু ধীরে এগোচ্ছি। টুর্নামেন্টটা নভেম্বরে হবে। আমাদের কাছে সময় আছে। এভাবে গেলে হয়তো আমরা একটা ভালো টুর্নামেন্ট দিতে পারবো।’

সময় বাড়ানো হবে নাকি পাঁচটি দল নিয়েই বিপিএলের তৃতীয় আসর শুরু হবে এমন প্রশ্নের জবাবে নিজামউদ্দিন চৌধুরী বলেন, ‘এটা অবশ্য বোর্ড ও বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের সিদ্ধান্তে হবে। তারা সিদ্ধান্ত নেবে কি করবে, কি করবে না। আমরা এখন পর্যন্ত পাঁচটা পেয়েছি। যেহেতু আরও প্রতিষ্ঠান যোগাযোগ করছে সেহুতু বোর্ড মিটিং আছে আমাদের। আমরা সাতটা দল নিয়ে টুর্নামেন্টটা করতে চেয়েছি।’

নিজাম উদ্দিন চৌধুরী আর বলেন, ‘বোর্ড সভাতেই এ নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হবে। আগামী সপ্তাহে বোর্ড মিটিং হওয়ার কথা রয়েছে। তার আগে অবশ্য বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের সভায় এ নিয়ে আলোচনা হবে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *