Sun. Apr 18th, 2021

খােলাবাজার২৪, বুধবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১ঃ গরমের প্রভাব এসেছে গেছে। দিনে প্রখর সূর্য, মিষ্টি বিকেল, অস্বস্তিময় রাতসহ আরো অনেক কিছুই মনে করিয়ে দিচ্ছে এ কথা। গরমে সতেজ ও প্রাণবন্ত থাকতে কী করছেন আপনি? একাধিকবার গোসল, ঠাণ্ডা পানি পান ও আইসক্রিম খাওয়াও কিন্তু এই সময়ে আপনাকে স্বস্তি এনে দিতে পারে না। তা ছাড়া করোনাভাইরাস থেকে দূরে থাকতে হলে সর্দি থেকে সুরক্ষা পেতে হবে।

আপনি কি জানেন, গরমে কীভাবে আপনার ঘরকে প্রাকৃতিকভাবে ঠাণ্ডা রাখবেন? কীভাবে তাপমাত্রাকে পরাস্ত করবেন, পাশাপাশি নিজের পকেটের অর্থও সাশ্রয় করবেন, সেই বিদ্যা কি জানা আছে আপনার? যদি না জেনে থাকেন, তাহলে এই লেখাটি আপনার জন্য।

আসলে বাড়ির ভেতরে এয়ার কন্ডিশনার আপনার সমস্যা সমাধান করতে পারে, কিন্তু এই গরমে সারা দিন ঘরের মধ্যে থাকা কি সম্ভব? সেই সঙ্গে বিদ্যুৎ বিলের কথা মাথায় রাখলে আপনার পক্ষে নিরবচ্ছিন্নভাবে এয়ার কন্ডিশনার চালিয়ে রাখাও সম্ভব নয়।

আপনার যদি শিশুসন্তান থাকে, তাহলে স্কুল বা খেলার মাঠ থেকে ফিরে এয়ার কন্ডিশনড রুমে প্রবেশের অভ্যাস হতে পারে তাদের। আর এটি নেতিবাচক অভ্যাসগুলোর একটি। এই চর্চার ফলে তাদের কফ, ঠাণ্ডা, এমনকি জ্বর হতে পারে। শুধু তা-ই নয়, এয়ার কন্ডিশনারের ঠাণ্ডা বাতাস ত্বক শুকনো করে দিতে পারে।

তাই আপনার ঘরকে প্রাকৃতিকভাবে শীতল রাখতে নিম্নোক্ত উপায়গুলো অনুসরণ করতে পারেন। এর ফলে কোনো ধরনের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া ছাড়াই আপনি ঘরকে ঠাণ্ডা রাখতে পারবেন। স্বাস্থ্য ও জীবনধারাবিষয়ক ওয়েবসাইট বোল্ডস্কাই এক প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানিয়েছে।

প্রাকৃতিক ভেন্টিলেশন

আপনার ঘরের কোন দিক দিয়ে বাতাস প্রবেশ করে, সেটি লক্ষ করুন। পর্যবেক্ষণ শেষে সেই দিকের জানালাটি খোলা রাখুন। এতে আপনার ঘরে পর্যাপ্ত বাতাস যেতে পারবে।

জানালা খোলা রাখুন

শুধু দিনে নয়, সূর্যাস্তের পরও জানালা খোলা রাখুন। গরমে বায়ুপ্রবাহ তীব্র থাকে, যা স্ট্রোকের কারণ হতে পারে। কিন্তু সূর্যাস্তের পর তাপমাত্রা কিছুটা হ্রাস পায়। এ সময় ঠাণ্ডা বাতাস ও প্রায়ই বৃষ্টির সঙ্গে ঝড় হয়। তাই সন্ধ্যায় মিষ্টি বাতাস পেতে খোলা রাখুন জানালা।

সাদা লিনেন কার্যকর

ঘর ঠাণ্ডা রাখতে সাদা লিলেনের কাপড় কার্যকর। সাদা বা উজ্জ্বল রঙের বস্তু তাপমাত্রাকে শোষণ করে না এবং প্রতিফলন ঘটায়। তাই এটি ঘরে ঠাণ্ডা অনুভব এনে দেয়। বেডশিট, জানালার পর্দাসহ সাদা লিলেন কাপড় ব্যবহার করুন।

দারুণ প্রাকৃতিক দৃশ্য

ঘরের দৃশ্যাবলীর দিকে মনোযোগ দিন। ঘরকে শীতল রাখতে কিছু স্থানে টবে গাছ রোপণ করুন, বাইরে বাগান তৈরি করুন। ঘরের পূর্ব-পশ্চিম কোণে ছায়া দেয়, এমন গাছ রোপণ করুন। এতে সূর্য সরাসরি আপনার ঘরে প্রবেশ করতে পারবে না। এ ছাড়া বাড়ির চারপাশে ঘাস রোপণ করলে তা বাড়িতে ঠাণ্ডা পরিবেশ এনে দেবে।

সাদা ছাউনি

বাড়িকে প্রাকৃতিকভাবে শীতল রাখতে এটি সেরা পদ্ধতি হিসেবে বিবেচিত হয়। বিশেষত শহরাঞ্চলে এটি বেশ ভালো পদ্ধতি। এটি সূর্যের তাপ থেকে বাড়িকে রক্ষা করে এবং প্রাকৃতিকভাবে বাড়িতে শীতল ভাব এনে দেয়।

নিজেই তৈরি করুন এয়ার কন্ডিশনার

বড় একটি বোলে বরফ কিউব রাখুন এবং ফ্যান চালু করুন। বরফ গলে যাওয়ার সঙ্গে বাতাস ঠাণ্ডা পানিকে শোষণ করবে এবং রুমে ছড়িয়ে দেবে। এভাবেই আপনার রুম ঠাণ্ডা হবে।