Thursday , November 7 2019
ব্রেকিং নিউজ :

Home / বিনোদন / এবারে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার উঠল যাদের হাতে

এবারে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার উঠল যাদের হাতে

খােলাবাজার ২৪,বৃহস্পতিবার,০৭নভেম্বর,২০১৯ঃ দীর্ঘ অপেক্ষার অবসান ঘটিয়ে অবশেষে প্রকাশ করা হলো জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার প্রাপ্তদের নাম। তথ্য মন্ত্রণালয় ২০১৭ ও ২০১৮ সালের সেরা অভিনেতা ও অভিনেত্রীদের নাম ঘোষণা করেছে। যেখানে সেরা অভিনেতার পুরস্কার হাতে উঠছে সবার পছন্দের দুই তারকার হাতে।

আজ বৃহস্পতিবার (৭ নভেম্বর) বিগত দুই বছরের সেরা অভিনেতাদের নাম প্রকাশ করে গেজেট প্রকাশ করা হয়।

ঘোষণা অনুযায়ী, ২০১৭ সালে মুক্তি পাওয়া শাকিব খানের ‘সত্তা’ ও  আরেফিন শুভ’র ‘ঢাকা অ্যাটাক’ যৌথভাবে সেরা চলচ্চিত্র হিসেবে বিবেচিত হয়েছে। ফলে যৌথভাবে উভয়ে সেরা অভিনেতা হয়েছেন।

এ দুটি সিনেমা ওই বছরের সেরা চলচ্চিত্র নির্বাচিত হলেও, দুই ছবির পরিচালকদের কেউই সেরা পরিচালক হিসেবে স্বীকৃতি পায়নি। তারা সেরা না হওয়ায় এ নিয়ে সিনেপাড়ায় মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা গেছে।

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার সুপার স্টার শাকিব খানের এ নিয়ে চতুর্থবার হলেও, প্রথমবারের মত জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার ঘরে তুলতে যাচ্ছেন আরেফিন শুভ।

অন্যদিকে, ২০১৮ সালে মুক্তি পাওয়া ‘পুত্র’ ছবিতে সেরা অভিনেতার পুরস্কার উঠছে ‘হঠাৎ বৃষ্টি’ খ্যাত অভিনেতা ফেরদৌসের হাতে। তার পাশাপশি ‘জান্নাত’ ছবিতে অভিনয়ের জন্য সেরা অভিনেতা হয়েছেন চিত্রনায়ক সাইমন সাদিক।

ফেরদৌসের হাতে পঞ্চমবারের মত এ রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতি উঠলেও জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে নবাগত সাইমন সাদিক।

‘সত্তা’ ছবিতে অনবদ্য অভিনয়ের জন্য ২০১৭ সালের সেরা নায়ক হয়েছেন ঢাকাই ছবির সুপারস্টার শাকিব খান। সে বছরের ৭ এপ্রিল দেশের প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পায় শাকিব খান এবং পাওলী দাম অভিনীত ছবি ‘সত্তা’।

তবে ছবি মুক্তির তিন দিন পর শাকিব খানের ব্যক্তিগত জীবনের কাহিনী ফাঁস হয়ে যায়। এসব ঘটনার প্রেক্ষিতে পর্দার নায়ক ‘নাম্বার ওয়ান শাকিব খান’ সে সময় অনেকের কাছেই খলনায়ক হয়ে ওঠেন। এর প্রভাবে ছবিটি তুলনামূলক কম ব্যবসা হয় বলে বলেছেন বিশ্লেষকরা।
এদিকে শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র হিসেবে পুরস্কারপ্রাপ্ত ছবি ‘ঢাকা এ্যাটাক’ এ পুলিশ অফিসার চরিত্রে অনবদ্য অভিনয় করে সেরা অভিনেতার পুরস্কার জিতে নিয়েছেন আরিফিন শুভ।

২০১৭ সালের ৬ অক্টোবর বাংলাদেশে ১২৩টি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পায় ‘ঢাকা অ্যাটাক’। বছরের সবচেয়ে আলোচিত সিনেমা ছিলো এটি।

অভিষেকেই বাজিমাত করেছেন চলচ্চিত্র নির্মাতা দীপঙ্কর দীপন। পুলিশি অ্যাকশন গল্পের এই ছবিতে জুটি বেঁধে অভিনয় করেছেন আরিফিন শুভ ও মাহিয়া মাহি।

২০১৮ সালের সেরা চলচ্চিত্র ‘পুত্র’ সে বছরের ৫ জানুয়ারি ১০৬টি হলে মুক্তি পেয়েছিল। ফেরদৌস ও জয়া আহসান জুটির ছবিটি ব্যবসায়িক সাফল্য না পেলেও বেশ প্রশংসিত হয়। অটিজম নিয়ে নির্মিত ‘পুত্র’ চলচ্চিত্রে ফারিয়া শামস সাওতি এবং শিশুশিল্পী লাজিম প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছেন।

ডিএফপির মহাপরিচালক হারুন রশীদের চিত্রনাট্যে এ ছবি পরিচালনা করেছেন সাইফুল ইসলাম মান্নু।

এছাড়াও এ চলচ্চিত্রে আজিজুল হাকিম, ডলি জহুর, লায়লা হাসান, মনির খান শিমুল, শামস সামস, মুনিরা ইউসুফ মোমি, শর্মি মালা, আল মামুন, লিনা আহমেদ, মাহমুদ সজদ, বাপ্পা মজুমদার, ফাহমিদা নবী, মেহেরিন, মিলটন খন্দকার প্রমুখ।

এবার মোট ২৮টি বিভাগে পুরস্কার প্রদান করা হয়েছে। সেগুলো হলো – আজীবন সম্মাননা, শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র, শ্রেষ্ঠ স্বল্প দৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র, শ্রেষ্ঠ প্রামাণ্য চলচ্চিত্র, শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র পরিচালক, শ্রেষ্ঠ অভিনেতা প্রধান চরিত্রে, শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী প্রধান চরিত্রে, শ্রেষ্ঠ অভিনেতা পার্শ্ব চরিত্রে, শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী পার্শ্ব চরিত্রে, শ্রেষ্ঠ অভিনেতা/অভিনেত্রী খল চরিত্রে, শ্রেষ্ঠ অভিনেতা/অভিনেত্রী কৌতুক চরিত্রে, শ্রেষ্ঠ শিশু শিল্পী, শিশু শিল্পী শাখায় বিশেষ পুরস্কার, শ্রেষ্ঠ সংগীত পরিচালক, শ্রেষ্ঠ নৃত্য পরিচালক, শ্রেষ্ঠ গায়ক, শ্রেষ্ঠ গায়িকা, শ্রেষ্ঠ গীতিকার, শ্রেষ্ঠ সুরকার, শ্রেষ্ঠ কাহিনীকার, শ্রেষ্ঠ চিত্র নাট্যকার, শ্রেষ্ঠ সংলাপ রচয়িতা, শ্রেষ্ঠ সম্পাদক, শ্রেষ্ঠ শিল্প নির্দেশক, শ্রেষ্ঠ চিত্রগ্রাহক, শ্রেষ্ঠ শব্দগ্রাহক, শ্রেষ্ঠ পোশাক ও সাজসজ্জা এবং শ্রেষ্ঠ মেকআপম্যান।

প্রসঙ্গত ২০১৭ ও ২০১৮ সালের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারের জন্য গঠিত জুরি বোর্ডে তথ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিবকে (প্রশাসন ও চলচ্চিত্র) সভাপতি করা হয়েছে।

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ডের ভাইস চেয়ারম্যান সদস্য-সচিব হিসেবে এবং বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন কর্পোরেশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক, তথ্য মন্ত্রণালয়ের যুগ্মসচিব (চলচ্চিত্র) ও বাংলাদেশ ফিল্ম আর্কাইভের মহাপরিচালক সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

১৩ সদস্যবিশিষ্ট ২০১৭ সালের জুরি বোর্ডের অন্য সদস্যরা হলেন- ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিপার্টমেন্ট অব টেলিভিশন ফিল্ম অ্যান্ড ফটোগ্রাফির চেয়ারম্যান অধ্যাপক শফিউল আলম ভূঁইয়া, একুশে টেলিভিশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মনজুরুল আহসান বুলবুল, চলচ্চিত্র অভিনেত্রী কোহিনুর আক্তার সুচন্দা, চলচ্চিত্র অভিনেতা ও প্রযোজক এম এ আলমগীর, বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সমিতির সভাপতি মুশফিকুর রহমান গুলজার, চিত্রগ্রাহক পংকজ পালিত ও সংগীত পরিচালক সুজেয় শ্যাম।

২০১৮ সালের জুরি বোর্ডের অন্য সদস্যরা হলেন- ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিপার্টমেন্ট অব টেলিভিশন ফিল্ম অ্যান্ড ফটোগ্রাফির চেয়ারম্যান অধ্যাপক শফিউল আলম ভূঁইয়া, চলচ্চিত্র অভিনেতা ড. এনামুল হক, সংগীতশিল্পী ফকির আলমগীর, দৈনিক ভোরের কাগজের সম্পাদক শ্যামল দত্ত, গীতিকার ও সংগীত পরিচালক হাসান মতিউর রহমান, অভিনেত্রী রওশন আরা রোজিনা, বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সমিতির সভাপতি মুশফিকুর রহমান গুলজার ও বাংলাদেশ চলচ্চিত্র গ্রাহক সংস্থার যুগ্ম-মহাসচিব তপন আহমেদ।

Print Friendly, PDF & Email

About kholabazar 24