Wed. Jun 23rd, 2021

খােলাবাজার২৪, বৃহস্পতিবার, ১০জুন, ২০২১ঃ দেশে তরলীকৃত পেট্রোলিয়াম গ্যাসের (এলপিজি) বাজার বাড়াতে বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম করপোরেশনের অঙ্গপ্রতিষ্ঠান যমুনা অয়েল কোম্পানি লিমিটেডের সঙ্গে কাজ করবে বসুন্ধরা এলপি গ্যাস লিমিটেড। এ লক্ষ্যে গত মঙ্গলবার যমুনা ভবনে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে একটি চুক্তি সই হয়েছে।

এতে যমুনা অয়েল কম্পানি লিমিটেডের পক্ষে সই করেন প্রতিষ্ঠানটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. গিয়াস উদ্দিন আনচারী এবং বসুন্ধরা এলপি গ্যাস লিমিটেডের হেড অব সেলস জাকারিয়া জালাল।

অটোগ্যাস বা এলপিজি বিশ্বজুড়ে পরিবেশবান্ধব জ্বালানি হিসেবে অত্যন্ত জনপ্রিয় ও প্রশংসিত। এ চুক্তির মাধ্যমে বসুন্ধরা এলপিজি সারা দেশের যানবাহনে ব্যবহারের জন্য পরিবেশবান্ধব জ্বালানি এলপিজি দ্রুত প্রবেশের বিষয়টি নিশ্চিত করতে পারবে।

যমুনা অয়েল কোম্পানির এমডি মো. গিয়াস উদ্দিন আনচারী বলেন, ‘যানবাহনের জ্বালানি হিসেবে অটোগ্যাস ইতিমধ্যে বিশ্বজুড়ে পরিবেশবান্ধব জ্বালানি হিসেবে অত্যন্ত জনপ্রিয়। এ চুক্তির মাধ্যমে বসুন্ধরা এলপিজি সারা দেশের যানবাহনে ব্যবহারের জন্য পরিবেশবান্ধব জ্বালানি দ্রুত প্রবেশের বিষয়টি নিশ্চিত করতে পারবে।’

বসুন্ধরা এলপি গ্যাসের হেড অব সেলস জাকারিয়া জালাল বসুন্ধরা এলপি গ্যাসের বর্তমান এলপিজি আমদানি, সংরক্ষণ, সিলিন্ডার প্রস্তুতকরণ এবং সরবরাহ সক্ষমতা তুলে ধরেন। তিনি বলেন, ‘যমুনা অয়েল কম্পানির সঙ্গে এলপিজি ইন্ডাস্ট্রিতে সর্ববৃহৎ প্রতিষ্ঠান বসুন্ধরা এলপি গ্যাসের চুক্তি স্বাক্ষর একটি মাইলফলক হিসেবে থাকবে। এই চুক্তির আওতায় বাংলাদেশের প্রথাগত ফুয়েলের বিপরীতে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে স্বীকৃতিসম্পন্ন এবং অধিক নিরাপদ অটোগ্যাস বাজারজাতকরণের জন্য দুই পক্ষই একসঙ্গে কাজ করবে। পণ্য বৈচিত্র্য এবং বাজারজাতকরণে বসুন্ধরা যেভাবে কাজ করে আসছে, অটোগ্যাস খাতেও বসুন্ধরা তার শ্রেষ্ঠত্ব বজায় রাখবে।’

এ সময় যমুনা অয়েল কম্পানির বিপণন বিভাগের মহাব্যবস্থাপক মো. আইয়ুব হোসেন, মানবসম্পদ বিভাগের মহাব্যবস্থাপক মো. মাসুদ করিম, মো. খসরু আজাদ (ডিজিএম-ফিন্যান্স), মাসুদুল ইসলাম (ডিজিএম-অ্যাকাউন্টস), জি এ এ মুইদ (ডিজিএম-অপারেশন), মো. আব্দুস সবুর খান (ডিজিএম- সেলস), মো. জসীম উদ্দিন (ডিজিএম-প্ল্যানিং অ্যান্ড ইকোনমিকস) ও মো. হাসান ইমাম (এজিএম- সেলস, চট্টগ্রাম) এবং বসুন্ধরা এলপি গ্যাসের নূর কুতুব (এজিএম-সেলস), মো. আরিফুল ইসলাম (ডিভিশনাল সেলস ম্যানেজার) ও মো. এনামুল হক (ডেপুটি ম্যানেজার-সেলস) উপস্থিত ছিলেন।