বৃহঃ. অক্টো ২১, ২০২১

খোলাবাজার২৪,শুক্রবার ০১ অক্টোবর ২০২১ঃ নিয়মিত ধূমপানে ফুসফুসের সঙ্কট বাড়ে। এর আর নতুন কি! এই ভেবেই বর্তমানের সুখটান ছাড়তে পারেন না অনেকে। কিন্তু এই বদঅভ্যাস শুধু শরীর নয়, মানসিক স্বাস্থ্যেরও ব্যপক ক্ষতি করে, বলছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা WHO এর একটি গবেষণা।

 গবেষণা প্রতিবেদন অনুযায়ী, ধূমপানের কারণে অসময়ে মৃত্যুর আশঙ্কা বাড়ে ৬.৪ গুণ। এই বদঅভ্যাসের কারণে মানসিক রোগে আক্রান্তের কারণেই মানুষের আয়ু কমে ৫- ১০ বছর।

আর শারীরিক রোগ তো আছেই। ক্যানসার, ডায়াবেটিস এবং হৃদরোগের ঝুঁকিও বাড়ায় নিকোটিন।

ধূমপান কীভাবে মনের উপর প্রভাব ফেলে?

নিকোটিনের কারণে শরীরে এন্ডরফিন হরমনের ক্ষরণ বাড়ে। এটিই প্রভাবিত করে মস্তিষ্ককে।

ধূমপানের কারণে সৃষ্ট শারীরিক রোগ যেমন ডায়াবেটিস, ক্যানসার, হৃদরোগ নিয়ে বিভিন্ন গবেষণা হতে দেখা যায়। অর্থাৎ এনিয়ে কিছুটা হলেও সচেতন মানুষ।

কিন্তু, মানসিক স্বাস্থ্যের উপর ধূমপানের যে প্রভাব, তা অবহেলাতেই থেকে যায়। যেকারণে মানসিক স্বাস্থ্যের পরিচর্যা বাহুল্যই মনে হয় সবার কাছে।

অতিরিক্ত ধূমপান থেকে সৃষ্ট অবসাদ ডেকে আনতে পারে সিজোফ্রেনিয়ার মত রোগও।

কারণ সিগারেটের ধোঁয়ায় এমন একটি রাসায়নিক থাকে যার প্রভাবে মস্তিষ্কের গ্রে ও হোয়াইট ম্যাটার শুকিয়ে যেতে থাকে।

তবে চিকিৎসকদের বক্তব্য, ধূমপান একেবারে বন্ধ করে দিলে এত দিনের প্রভাবে যে ক্ষতি হয়ে গেছে তা  খানিকটা হলেও কাটিয়ে ওঠা সম্ভব।