বুধ. ফেব্রু ২১, ২০২৪
Logo Signature
Agrani Bank
Rupali Bank
Advertisements

খোলাবাজার অনলাইন ডেস্ক : বাংলাদেশের তথ্য, যোগাযোগ ও প্রযুক্তি শিল্পের নেতৃস্থানীয় বাণিজ্য সংস্থা বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অফ সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস), এবং শীর্ষস্থানীয় ইনভেস্টমেন্ট ব্যাংক, প্রাইম ব্যাংক ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেড (পিবিআইএল) প্রথমবারের মতো একটি অভিনব উদ্যোগে এক হয়েছে যা দেশের তথ্য, যোগাযোগ ও প্রযুক্তি খাতের কোম্পানিগুলোর পুঁজিবাজারে প্রবেশের পথ সুগম করবে।

বেসিসের প্রধান কার্যালয়ে, ৫ ডিসেম্বর, ২০২৩-এ স্বাক্ষরিত চুক্তিটি তথ্য, যোগাযোগ ও প্রযুক্তি শিল্প ও  পুঁজিবাজার উভয়ের জন্য গুরুত্বপূর্ণ মাইলফলক। বেসিস এর সভাপতি রাসেল টি আহমেদ, সেক্রেটারি হাশিম আহমেদ, পিবিআইএল এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও  সৈয়দ এম ওমর তৈয়ব এবং চিফ অপারেটিং অফিসার খন্দকার রায়হান আলী, এফসিএ সহ অন্যান্য শীর্ষস্থানীয় কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে সমঝোতা স্মারক বিনিময় হয়। দেশের প্রধান আইসিটি সংস্থা এবং বিশিষ্ট ইনভেস্টমেন্ট ব্যাংকের এই উদ্যোগের মাধ্যমে একটি নতুন ধারার সুচনা হলো। উভয় সংস্থাই বেসিস সদস্যদের জন্য পুঁজিবাজারে প্রবেশের পথ সুগম করার লক্ষ্যে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।

প্রাইম ব্যাংক ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেড (পিবিআইএল), একটি পূর্ণাঙ্গ ইনভেস্টমেন্ট ব্যাংক এবং প্রাইম ব্যাংক এর একটি সহযোগী প্রতিষ্ঠান। এই যুগান্তকারী চুক্তির মাধ্যমে পিবিআইএল বেসিস সদস্য কোম্পানিগুলিকে শেয়ার বাজার হতে ইক্যুইটি এবং ডেট ক্যাপিটালের মাধ্যমে পুঁজি সংগ্রহ, কর্পোরেট অ্যাডভাইজরি এবং পোর্টফোলিও ম্যানেজমেন্ট পরিষেবা প্রদান করবে।

প্রাইম ব্যাংক ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেডের ম্যানেজিং ডিরেক্টর ও সিইও সৈয়দ এম ওমর তৈয়ব বলেন, “বেসিসের সাথে চুক্তিবদ্ধ হওয়ার মাধ্যমে আমাদের ইন্ডাস্ট্রি অ্যালায়েন্সের বৃহত্তর উদ্যোগের সূচনা হলো। এর মাধ্যমে তথ্যপ্রযুক্তি সংশ্লিষ্ট সংস্থাগুলো পুঁজিবাজারে অংশগ্রহণে উৎসাহিত হবে। ডিজিটাল ট্রান্সফরমেশনের যুগে তথ্যপ্রযুক্তি খাতের রয়েছে অপার সম্ভাবনা। বাংলাদেশের পুঁজিবাজারের সার্বিক বাজার মূলধনে আইটি খাতের অবদান মাত্র ১%, যা আমাদের প্রতিবেশী দেশ ভারতে ১১%। আমরা আশাবাদী যে বেসিসের সাথে আমাদের সম্মিলিত প্রচেষ্টা শুধুমাত্র তথ্যপ্রযুক্তি খাতের শেয়ার বাজার হতে ইক্যুইটি এবং ডেট ক্যাপিটাল এর মাধ্যমে পুজি সংগ্রহ বাড়াবে না, বেসিস সদস্যদের জন্য নতুন এক দিগন্ত উন্মুক্ত করবে যা তাদের বড় পরিসরে  সাফল্যের দিকে নিয়ে যাবে।”

বেসিস-এর সভাপতি রাসেল টি. আহমেদ, এই উদ্যোগে আশাবাদ ব্যক্ত করে বলেন, “এই চুক্তি অবশ্যই আমাদের সদস্যদের পুঁজিবাজারে আসতে উৎসাহিত করবে। এছাড়াও বিশেষায়িত অ্যাডভাইজরি পরিষেবাগুলি সদস্যদের আর্থিক ব্যবস্থাপনাকে সুবিন্যস্ত করতে সাহায্য করবে।”তিনি পিবিআইএলকে বেসিস সদস্যদের সুবিধার্থে দিনব্যাপী প্রচারণার পরিকল্পনা করার আহ্বান জানান।

বাংলাদেশ প্রযুক্তিগত অগ্রগতির কেন্দ্র হিসেবে এগিয়ে যাচ্ছে. বেসিস এবং পিবিআইএল-এর মধ্যে এই কৌশলগত চুক্তি পুঁজিবাজার এবং আইসিটি শিল্পে একটি সমৃদ্ধ ভবিষ্যতের দ্বার উন্মোচন করবে।